নির্বাচনের পিকনিকের খিচুড়িতে ফেলা হলো ময়লা

বগুড়া প্রতিনিধি: ৭০ জন নারী-পুরুষ মিলে রান্না করেছিল খিচুড়ি। আনন্দের সাথে খাবে তারা। নির্বাচন উপলক্ষে এই পিকনিকের আয়োজন করা হয়। কিন্তু হঠাৎ হাজির হলেন বগুড়ার আদমদীঘি উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ফিরোজ হোসেন। এরপর রান্না করা খাবারের মধ্যে দেওয়া হয় আবর্জনা। অভিযোগ, এসিল্যান্ড ফিরোজ হোসেনের গাড়ির চালক হযরত আলী খিচুড়ির মধ্যে ছাগলের বিষ্ঠাসহ ময়লা-আবর্জনা ছিটিয়ে দেন।

রোববার (১৯ মে) মধ্যরাতে উপজেলার সদর ইউনিয়নের কেশরতা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে জনমনে।
জানা যায়, আদমদীঘিতে ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদ দ্বিতীয় ধাপের নির্বাচন আগামীকাল ২১ মে অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচন উপলক্ষে আচরণবিধি বিষয়ে উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় ডিউটি করছিলেন উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ফিরোজ হোসেন। রবিবার রাতে সদর ইউনিয়নের কেশরতা গ্রামের প্রায় শতাধিক নারী-পুরুষ মিলে পিকনিকের আয়োজন করে। সেখানে আনারস প্রতীকের সমর্থক একই এলাকার সাধারণ ভোটারগণ একত্রিত হয়ে খিচুড়ি রান্না করছিলেন খাওয়ার জন্য।

আরও পড়ুনঃ   নাটোরে দুই ব্যবসায়ীকে কুপিয়েছে কিশোর গ্যাংয়ের সদস্যরা

তারা বলেছেন, যদি কোনো অন্যায় করে থাকি, তাহলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করতে পারতেন তিনি। কিন্তু রান্না করা খাবারের মধ্যে আবর্জনা দেওয়া মোটেও কাম্য নয়। এ ঘটনায় সুষ্ঠু বিচারের দাবি করেছেন তারা। আনারস প্রতীকের প্রার্থীর সমর্থকেরা সেখানে পিকনিক করছিল বলে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আবু রেজা খান।

আরও পড়ুনঃ   নাটোরে নারী খেলোয়াড়ের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

এক নারী বলেন, আমরা চাঁদা দিয়ে পিকনিকের আয়োজন করে রান্না করেছিলাম। কিন্তু খাবারের মধ্যে ময়লা-আবর্জনা দেওয়ায় আমরা আর খাবার খেতে পারিনি। সারা রাত না খেয়ে থাকতে হয়েছে।
বিষয়টি জানার জন্য একাধিকবার ফোন ও sms পাঠালেও কোনও সাড়া দেয়নি সহকারী কমিশনার (ভূমি) ফিরোজ হোসেন।
নির্বাহী অফিসার রুমানা আফরোজ মোবাইল ফোনে বলেন, নির্বাচন শেষ হলে বিষয়টি খতিয়ে দেখ।