জরিমানার পাশাপাশি নিষিদ্ধও হলেন পান্ত

অনলাইন ডেস্ক : আইপিএলে স্লো ওভার রেটের কারণে শাস্তির ঘটনা প্রায় ম্যাচেই দেখা যায়। দলের প্রতিনিধি হিসেবে সেই দায় নিতে হয় অধিনায়ককে। তবে এবার দিল্লি ক্যাপিটালসের পুরো স্কোয়াডকেই জরিমানা গুনতে হচ্ছে। তাতেই শাস্তি সীমিত হলে যথেষ্ট হতো, ৩০ লাখ রুপি জরিমানার পাশাপাশি এক ম্যাচ নিষিদ্ধও হয়েছেন দিল্লি অধিনায়ক ঋষভ পান্ত।

গত ৭ মে রাজস্থান রয়্যালসের বিপক্ষে ঘরের মাঠে খেলেছিল পান্তের দিল্লি। ওই ম্যাচটিতে তারা জয়ও পেয়েছিল। তবে দিল্লির পেসার মুকেশ কুমার যখন ম্যাচের শেষ ওভার করতে এসেছেন, তার আগেই নির্ধারিত সময়ের ১০ মিনিট পেরিয়ে গেছে। ফলে ফিল্ড সেট–আপে মাঠেই তারা শাস্তি পেয়েছে, এবার পুরো দলই তার মাশুল হিসেবে গুনছে জরিমানা। ম্যাচটিতে খেলা ইম্প্যাক্ট প্লেয়ারসহ একাদশে থাকা সবার ম্যাচ ফি’র ৫০ শতাংশ বা ১২ লাখ রুপি করে জরিমানা করা হয়েছে।

আরও পড়ুনঃ   ডিপিএল মঞ্চেও ব্যর্থ লিটন

ওই সিদ্ধান্তের বিপক্ষে আপিল করেছিল দিল্লি। যদিও ম্যাচ রেফারির বিরুদ্ধে করা সেই আবেদন পর্যালোচনার পর প্রত্যাখ্যান করেছে বিসিসিআই। এ নিয়ে ভার্চুয়াল শুনানিরও আয়োজন করেছিল দেশটির সর্বোচ্চ ক্রিকেট নিয়ন্ত্রক সংস্থাটি। সেখানে ম্যাচ রেফারি ড্যানিয়েল মনোহরের সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত বলে রায় দেওয়া হয়।

এই ম্যাচসহ মোট তিনবার স্লো ওভার রেটে পড়েছে পান্তের দিল্লি। সেই কারণেই মূলত এই এক ম্যাচের নিষেধাজ্ঞা। সাধারণত এক ম্যাচ স্লো ওভার রেটের কারণে দোষী হলে কেবল অধিনায়ক জরিমানা গুনেন। এক আসরে তিন ম্যাচই একই অপরাধে দোষী হলে, অধিনায়ককের নিষেধাজ্ঞা এবং পুরো দলকেও জরিমানা গুনতে হয়। এর ফলে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুর বিপক্ষে আগামীকালের (রোববার) ম্যাচে পান্তকে ছাড়াই খেলতে নামবে দিল্লি।

আরও পড়ুনঃ   বুন্দেসলিগা: ৯৭ মিনিটের গোলে লেভারকুসেনের ৪৫ ম্যাচে অপরাজিত থাকার রেকর্ড বজায় থাকলো

রিকি পন্টিং ও সৌরভ গাঙ্গুলির দলটি বর্তমানে পয়েন্ট টেবিলের পাঁচে অবস্থান করছে। এখনও প্লে-অফে খেলার আশা জিইয়ে রয়েছে তাদের। তবে পরের দুই ম্যাচেও জিততে হবে দিল্লিকে। ১২ ম্যাচ শেষে তাদের মতো সমান ১২ পয়েন্ট পেয়েছে আরও দুই দল। হায়দরাবাদ ১৪ এবং শীর্ষ দুইয়ে থাকা কলকাতা ও রাজস্থান ১৬ পয়েন্ট করে পেয়েছে। যদিও একটি ম্যাচ করে কম খেলেছে রাজস্থান ও কলকাতা।