২৫০ মিটার ড্রেনের জন্য ২ কিমি সড়কের গাছ কেটে সাবাড়

স্টাফ রিপোর্টার : চাঁপাইনবাবগঞ্জের একটি সড়কের একপাশে মাত্র ২৫০ মিটারের একটি ড্রেন নির্মাণ করা হবে। এজন্য সড়ক ও জনপথ (সওজ) বিভাগ ওই অংশের গাছগুলো কাটতে জেলা পরিষদকে অনুরোধ করেছিল। এখন জেলা পরিষদ সড়কের দুই পাশেই প্রায় ২ কিলোমিটার এলাকার গাছ কেটে ফেলছে। ঠিকাদারের লোকজন ১২ দিন ধরে এই গাছ কাটার কাজ করছেন। কাজ শেষ করতে আরও ১০ দিন সময় লাগবে।

রাজশাহীর গোদাগাড়ী উপজেলা সদর থেকে বেরিয়ে চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর ও নাচোল উপজেলার ভেতর দিয়ে নওগাঁর সাপাহার উপজেলা সদরে গিয়ে এই সড়ক শেষ হয়েছে। চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলার কেন্দুল থেকে আমনুরা বাইপাস রেলওয়ে স্টেশন পর্যন্ত সড়কের দুই পাশেই গাছ কাটা হচ্ছে।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা পরিষদ জানিয়েছে, প্রায় ২৬ লাখ টাকায় ২৫০টি গাছ বিক্রি করা হয়েছে। তবে বাস্তবে এর কয়েকগুণ বেশি গাছ কাটার অভিযোগ পাওয়া গেছে। জেলা পরিষদ থেকে বলা হয়েছে, গাছ কাটার সময় তাদের একজন প্রতিনিধি থাকছেন। অতিরিক্ত গাছ কাটার সুযোগ নেই। তবে সরেজমিন গাছ কাটার সময় কোনো প্রতিনিধি দেখা যায়নি।
কেন্দুল থেকে আমনুরা বাইপাস রেলওয়ে স্টেশন পর্যন্ত প্রায় দুই কিলোমিটার সড়কে গিয়ে দেখা গেছে, রাস্তার দুই পাশে শিমুল, কড়াই, শিশুসহ নানা প্রজাতির প্রায় হাজারখানেক গাছ ইতোমধ্যে কেটে ফেলা হয়েছে। কিছুদিন আগেও ছায়াঘেরা আমনুরা বাজার এখন গাছের অভাবে খাঁখাঁ করছে।

আরও পড়ুনঃ   গাজীপুরে বকেয়া বেতনের দাবিতে শ্রমিকদের বিক্ষোভ

আমনুরা বাজারের ব্যবসায়ী আবদুর রহিম বলেন, ‘গাছগুলো হারাক ছায়া দিত। জেলা পরিষদের এখন টাকার খুব দরকার। তাই কাইট্যা ফেলছে। হারা আর কি কহাবো? কহার কুনু জাগা আছে? শুননু যে আড়াইশ গাছ বিককিরি করা হয়্যাছে। এখুন দেখছি হাজারের বেশি কাছ কাইট্যা সাপা কইর‌্যা দিছে। এগলা তো দেখার কেহু নাই।’
কেন্দুল এলাকায় একটি তাজা কড়াই গাছ কাটছিলেন কয়েকজন শ্রমিক। কিছু কাটা গাছ সেখানে ট্রলিতেও তোলা হচ্ছিল। সেখানে জেলা পরিষদের কোনো প্রতিনিধিকে দেখা যায়নি।

আরও পড়ুনঃ   রাজধানীতে ট্রেনের টিকিট কালোবাজারি চক্রের ১০ সদস্য গ্রেপ্তার

সেখানে ছিলেন ঠিকাদারের প্রতিনিধি কবির হোসেন। তিনি অতিরিক্ত গাছ কাটার অভিযোগ অস্বীকার করে জানান, ১০ দিন ধরে তারা গাছ কাটছেন। আরও ১০ দিন লাগবে।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আফাজ উদ্দিন বলেন, ‘সড়ক ও জনপথ বিভাগ ওই এলাকায় রাস্তার পাশে ড্রেন করবে। সেজন্য গাছ কেটে নিতে আমাদের চিঠি দিয়েছে। তাই তাজা হলেও গাছগুলো কেটে নিতে হচ্ছে।’
গাছ কাটার জন্য জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা সওজের চিঠির কথা জানালেও সওজ বলছে, ওই এলাকায় সড়কের একপাশে মাত্র ২৫০ মিটার ড্রেন নির্মাণ করা হবে। সওজের চাঁপাইনবাবগঞ্জের উপবিভাগীয় প্রকৌশলী মেহেদী হাসান বলেন, ‘আমাদের মাত্র ২৫০ মিটার ড্রেন হবে। সেটাও রাস্তার একপাশে। রাস্তার দুই পাশে কেন জেলা পরিষদ গাছ কাটছে তা বলতে পারব না।