হেলিকপ্টারে চড়ে বউ আনলেন পোশাক শ্রমিক হজরত আলী

অনলাইন ডেস্ক : গাইবান্ধার সাদুল্লাপুর উপজেলার রফিকুল আকন্দ ও সালমা বেগম দম্পতির ছেলে হজরত আলী (২২)। বাবা-মায়ের স্বপ্ন ছিল একমাত্র ছেলেকে হেলিকপ্টারে চড়িয়ে বিয়ে করাবেন। অবশেষে সেই স্বপ্ন পূরণ হয়েছে।

শুক্রবার (৩ মে) বিকেল ৩টার দিকে উপজেলার ফরিদপুর ইউনিয়নের ইসবপুর (পূর্বপাড়া) গ্রামের এনামুল হক ও শেফালি বেগম দস্পতির মেয়ে রেফা মনিকে (১৮) বিয়ে করে হেলিকপ্টারে বাড়িতে ফিরেছেন হজরত আলী।

বর হজরত আলী উপজেলার ভাতগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য ও বুজরুক জামালপুর গ্রামের রফিকুল আকন্দের ছেলে। তিনি ঢাকার একটি পোশাক কারখানায় শ্রমিক হিসেবে কাজ করেন।

আরও পড়ুনঃ   তামাকমুক্ত বাংলাদেশ অর্জনে শক্তিশালী তামাককর ও মূল্য পদক্ষেপের বিকল্প নেই : ভার্চুয়াল বৈঠকে বক্তারা

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, রফিকুল আকন্দ ও সালমা বেগম দম্পতির একমাত্র ছেলে হজরত আলী। ছেলের জন্মের পর থেকে তারা স্বপ্ন বুনেন ছেলেকে হেলিকপ্টারে চড়িয়ে বিয়ে করাবেন। এরই ধারাবাহিকতায় শুক্রবার বিকেলে আকাশ পথে গিয়ে বিয়ে করলেন হজরত আলী। বরের বাড়ি থেকে কনের বাড়ির দূরত্ব ৫ কিলোমিটার। এ সময় বর ও কনের বাড়িতে হেলিকপ্টার দেখতে উৎসুক জনতার ভিড় জমে।

এদিকে হেলিকপ্টারে চড়ে বর আসায় খুশি কনের বাবা এনমামুল হক ও মা শেফালি বেগম। তারা বলেন, আমরা গর্বিত যে জামাই হেলিকপ্টারে চড়ে আমাদের মেয়েকে নিতে এসেছে। যৌতুক ছাড়াই এই বিয়ে সম্পন্ন হয়েছে বলে জানান তারা। দম্পতি।

আরও পড়ুনঃ   ৬ বিভাগে তাপপ্রবাহের সতর্কবার্তা

এ বিষয়ে বরের বাবা রফিকুল আকন্দ ও মা সালমা বেগম বলেন, হজরত আলী ছাড়া আমাদের আর কোনো ছেলে সন্তান নেই। ছেলেকে হেলিকপ্টারে চড়িয়ে বিয়ে করানোয় স্বপ্ন ছিল। আজ সেই স্বপ্ন পূরণ করতে পেরে নিজেকে অনেকটা ধন্য মনে করছি।