২৩ বছর পর গণধর্ষণ মামলার সাজাপ্রাপ্ত আসামি গ্রেপ্তার

অনলাইন ডেস্ক : সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় ২০০১ সালের চাঞ্চল্যকর পূর্ণিমা রাণী শীল গণধর্ষণ মামলার যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামি ইয়াছিন আলীকে (৬০) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

গতকাল মঙ্গলবার (৩০ এপ্রিল) ঢাকার আশুলিয়া থানাধীন চারাবাগ এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তারকৃত ইয়াছিন উল্লাপাড়া উপজেলার পূর্বদেলুয়া গ্রামের নিদান আলীর ছেলে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে বুধবার (১ মে) সিরাজগঞ্জের সহকারী পুলিশ (উল্লাপাড়া সার্কেল) সুপার অমৃত কুমার সুত্রধর ঢাকা পোস্টকে বলেন, ২০০১ সালের ৮ অক্টোবর সন্ধ্যায় সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় জাতীয় সংসদ নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতার জের ধরে অষ্টম শ্রেণি পড়ুয়া ছাত্রী পূর্ণিমা রাণী শীলের বাড়িতে হামলা চালিয়ে কতিপয় আসামি ভিকটিম ও তার মা-বাবা-ভাইকে বেধড়ক মারপিট করে ভাঙচুর ও লুটপাট চালায়। পরে ভিকটিম পূর্ণিমা রাণী শীলকে জোর করে ধরে একটি কচুক্ষেতে নিয়ে গণধর্ষণ করে। এ ঘটনায় ভিকটিমের বাবা অনিল চন্দ্র বাদী হয়ে ১৬ জনকে আসামি করে উল্লাপাড়া মডেল থানায় গণধর্ষণ মামলা করেন। উক্ত মামলায় বিজ্ঞ বিচারক ১১ জন আসামিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড এবং প্রত্যেককে ১ লাখ টাকা করে জরিমানা করেন।

আরও পড়ুনঃ   নিয়োগ দুর্নীতি : রুয়েটের সাবেক ভিসি এবং রেজিস্ট্রারের নামে মামলা হচ্ছে

তিনি আরও বলেন, মামলার পলাতক যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামিদের গ্রেপ্তারে পুলিশ নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। গ্রেপ্তারকৃত ইয়াছিন দীর্ঘদিন ধরে বিভিন্ন এলাকায় আত্মগোপনে ছিলেন। তাকে আজ সকালে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

আরও পড়ুনঃ   প্রতারণার দায়ে দুই ভুয়া এনএসআই সদস্যসহ আটক ৭

২০১১ সালের ৪ মে সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ার চাঞ্চল্যকর পূর্ণিমা রাণী শীল গণধর্ষণ মামলার রায়ে ১১ জনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেন আদালত। ১১ জনের মধ্যে ৫ জন পলাতক এবং বাকিরা কারাগারে রয়েছেন বলে জানা গেছে।