প্রাক্তন স্বামীর মামলায় রাখি

অনলাইন ডেস্ক : অভিনেত্রী রাখি সাওয়ান্ত এবং আদিল খান ২০২২ সালে বিয়ে করেন। কিন্তু ২০২৩ সালে জানুয়ারিতে অভিনেত্রী বিয়ের কথা প্রকাশ্যে আনেন। এর কয়েক মাসের মধ্যেই তাদের বিচ্ছেদ হয়ে যায়। রাখি আদিলকে গার্হস্থ্য সহিংসতা এবং যৌন হয়রানির জন্য অভিযুক্ত করেছিল। অন্যদিকে এ বছরের ৩ মার্চ চুপিসারে বিয়ের পিঁড়িতে বসেছেন রাখির প্রাক্তন স্বামী আদিল খান। বিগ বস ১২-এর প্রতিযোগী সোমি খানের সঙ্গে গাঁটছড়া বাঁধেন তিনি।

বিয়ের ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করেন তিনি। সে সময়ে ক্যাপশনে লেখেন, ‘স্বামী-স্ত্রী হিসেবে আমরা নতুন জার্নি শুরু করলাম। আমাদের আশীর্বাদ করবেন।’ পরিবার ও বন্ধুদের উপস্থিতিতে ব্যাঙ্গালুরুতে বিয়ে করেন তারা।

আরও পড়ুনঃ   কেমন ছিল নেহার অতীত জীবন


এক সাক্ষাৎকারে আদিল বলেন যে এটাই তার প্রথম বিয়ে। তার পর থেকেই রাখি এবং তার প্রাক্তন স্বামীর মধ্যে লড়াই চলতে থাকে। বিয়ের পর আদিল দাবি করেছিলেন তার সঙ্গে রাখির নিকাহ পুরোটাই রাখির সাজানো। তবে এবার তাদের লড়াইয়ের জল গিয়ে পৌঁছায় সুপ্রিম কোর্ট অবধি। জানা গিয়েছে, আদিল খানের অশ্লীল ভিডিও ফাঁস করেন রাখি। এই অভিযোগ নিয়ে রাখির বিরুদ্ধে মামলাও দায়ের করেন আদিল।

আরও পড়ুনঃ   কেন রাজনীতিতে আসতে চান না সোনাক্ষী

গ্রেপ্তার হওয়ার আশঙ্কায় সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হন অভিনেত্রী। সোমবার সুপ্রিম কোর্ট রাখির আগাম স্বস্তির আবেদন প্রত্যাখ্যান করে দেয়। শুধু তাই নয়, রাখিকে ৪ সপ্তাহের মধ্যে আত্মসমর্পণ করতে বলে সুপ্রিম কোর্ট। বম্বে হাইকোর্ট এর আগে অভিনেত্রীর আবেদন খারিজ করে দিয়েছিল। এর কারণেই তিনি শীর্ষ আদালতে এই সিদ্ধান্তকে চ্যালেঞ্জ করেছিলন। আদিল রাখির বিরুদ্ধে তার ব্যক্তিগত-অশ্লীল ভিডিও অনলাইনে প্রচার করার অভিযোগ দায়ের করেন।