অভিমানী কিশোরকে উদ্ধার করলো শাহমখদুম থানা পুলিশ

সংবাদ বিজ্ঞপ্তি : রাজশাহী মহানগরীর বোয়ালিয়া থানার শাহমখদুম মাজার এলাকা থেকে এক কিশোরকে উদ্ধার করে পারিবারের কাছে ফিরিয়ে দিয়েছে আরএমপি’র শাহমখদুম থানা পুলিশ। ঐ কিশোর গত ১৮ এপ্রিল অভিমান করে বাড়ি থেকে বের হয়।

উদ্ধারকৃত কিশোর মো: কালিম ইসলাম শাওন (১৪) রাজশাহী মহানগরীর শাহমখদুম থানার বড়বনগ্রাম চকপাড়ার মো: কালামের ছেলে।

ঘটনা সূত্রে জানা যায়, কিশোর মো: কালিম ইসলাম শাওন রাজশাহীর একটি হাফিজিয়া মাদ্রাসায় পড়ালেখা করত। সে গত ১৮ এপ্রিল ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ তার মায়ের উপর অভিমান করে বাড়ি বের হয়। কিন্তু বাড়িতে ফিরে না আসায় তার পরিবারের লোকজন আশপাশ এলাকাসহ আত্মীয় স্বজনদের বাড়িতে খোঁজাখুঁজি করেন। শাওনকে কোথাও না পেয়ে শাহমখদুম থানায় একটি নিখোঁজ জিডি করেন।

আরও পড়ুনঃ   নগরীতে পুলিশের অভিযানে গ্রেফতার ১৪ ও মাদকদ্রব্য উদ্ধার

শাহমখদুম থানার অফিসার ইনচার্জ মো: ইসমাইল হোসেন থানার সকল টহল টিমকে নিখোঁজ কিশোরকে দ্রুত উদ্ধারের নির্দেশনা প্রদান করেন। এরপর থানা পুলিশ ঐ কিশোরকে উদ্ধারে অভিযানে শুরু করে। শাহমখদুম থানা পুলিশ কিশোরের বাড়ির সামনে একটি দোকানের সিসি ক্যামেরা ও আরএমপি’ সিসি ক্যামেরার ভিডিও ফুটেজ পর্যালোচনায় করে বুঝতে পারে ঐ কিশোর বোয়ালিয়া থানা এলাকায় অবস্থান করছে। সেই কিশোরকে উদ্ধারে বোয়ালিয়া থানা এলাকাসহ শহরের বিভিন্ন স্থানে খোঁজখবর অব্যহত রাখে থানা পুলিশ। অবশেষে শাহমখদুম থানার এসআই মো: রনি মিয়া ও তার টিম গতকাল ২৩ এপ্রিল ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ সন্ধ্যা সাড়ে ৬ টায় বোয়ালিয়া থানার শাহমখদুম মাজারের সামনে থেকে উদ্ধার করে।

আরও পড়ুনঃ   প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর জীবনমান উন্নয়ন প্রকল্পের গুড প্র্যাকটিস বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত

পরবর্তী শাহমখদুম থানার অফিসার ইনচার্জ কিশোর কালিমকে রাতেই বাবার কাছে ফিরিয়ে দেন। কিশোর শাওনকে ফিরে পেয়ে তার বাবা অত্যন্ত আনন্দিত। পুলিশের আন্তরিকতায় ছেলেকে ফিরে পেয়ে তারা আরএমপি’র শাহমখদুম থানা পুলিশকে ধন্যবাদ জানিয়ে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন।