ইরাকের সামরিক ঘাঁটিতে ‘বোমা হামলা’: নিরাপত্তা সূত্র

অনলাইন ডেস্ক : ইরাকের মধ্যাঞ্চলে সেনাবাহিনী এবং ইরানপন্থী আধাসামরিক বাহিনীর একটি সামরিক ঘাঁটিতে শুক্রবার রাতে ‘বোমা হামলা’ চালানো হয়েছে। দুটি নিরাপত্তা সূত্র এ কথা জানিয়েছে।

ক্যালসো ঘাঁটিতে এই হামলা চালানো হয়,সেখানে প্রাক্তন ইরানপন্থী আধাসামরিক গোষ্ঠী,বর্তমানে নিয়মিত সেনাবাহিনীতে একীভূত হাশেদ আল-শাবি অবস্থান করছে। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের একটি সূত্র এবং একজন সামরিক কর্মকর্তা এ কথা জানান।
স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা বলেছেন, হামলায় একজন নিহত এবং আটজন আহত হয়েছে। সামরিক সূত্র জানিয়েছে, তিনজন ইরাকি সামরিক কর্মী আহত হয়েছে।

আরও পড়ুনঃ   রাফাতে ইসরায়েলের আক্রমণ হামাসকে নির্মূল করবে না : যুক্তরাষ্ট্র

হামলায় আহতের সংখ্যা উল্লেখ না করে এক বিবৃতিতে, হাশেদ আল-শাবি নিশ্চিত করেছেন যে, হামলায় অবকাঠামোগত ক্ষয়ক্ষতি এবং হতাহতের ঘটনা ঘটেছে।
এএফপি-র প্রশ্নের জবাবে, সূত্রগুলো এই হামলার জন্য কে দায়ী বা এটি একটি ড্রোন হামলা ছিল কিনা তা শনাক্ত করতে পারেনি।

মন্ত্রণালয়ের সূত্র জানিয়েছে, ‘বিস্ফোরণটি সরঞ্জাম, অস্ত্র এবং যানবাহনকে আঘাত করেছে।’ হামলার জন্য তাৎক্ষণিকভাবে কোনো পক্ষ দায় স্বীকার করেনি।
বিষয়টির সংবেদনশীলতার কারণে নাম প্রকাশ না করার শর্তে এই সামরিক কর্মকর্তা বলেন, ‘এগুলো ছিল সরঞ্জাম সংরক্ষণের গুদামে বিস্ফোরণ।এখনও আগুন জ্বলছে এবং আহতদের সন্ধান অব্যাহত রয়েছে।’

আরও পড়ুনঃ   ২ পুরুষের সঙ্গে স্ত্রীকে হাতেনাতে ধরলেন স্বামী

ইসলামিক স্টেট গোষ্ঠীর বিরুদ্ধে লড়াই করার জন্য গঠিত প্রধানত শিয়া সশস্ত্র গোষ্ঠীগুলোর একটি জোট হাশেদ আল-শাবি এখন ইরাকের নিরাপত্তা বাহিনীর একটি অংশ।

ইসরায়েল এবং তেহরানের সমর্থিত ফিলিস্তিনি যোদ্ধা হামাসের মধ্যে যুদ্ধকে কেন্দ্র করে আঞ্চলিক উত্তেজনার মধ্যে ইরানপন্থী আধাসামরিক বাহিনীর ঘাঁটিতে এই হামলার ঘটনা ঘটে।

শুক্রবার, ইরানের ইসফাহানের কাছে একটি সামরিক ঘাঁটি লক্ষ্য করে হামলার জন্য ইসরায়েলকে দায়ী করা হয়েছে।