ঝড়ে ছিঁড়ে যাওয়া বৈদ্যুতিক তারে স্পৃষ্ট হয়ে শিশুর মৃত্যু

অনলাইন ডেস্ক : বৈশাখী ঝড়ের তাণ্ডবে ছিঁড়ে গিয়েছিল বৈদ্যুতিক তার। ফুফাতো বোনের সঙ্গে খেলতে গিয়ে সেই তারে স্পৃষ্ট হয়ে সাত বছরের এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে।

বুধবার (১৭ এপ্রিল) সকাল সাড়ে ১০টার দিকে শরীয়তপুরের গোসাইরহাট উপজেলার হাটুরিয়া বাগানবাড়ি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত শিশু সানজিদা (৭) হাটুরিয়া বাগানবাড়ি গ্রামের মো. মনির খান ও খাদিজা দম্পতির মেয়ে।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, গতকাল মঙ্গলবার বিকেল থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত শরীয়তপুরের বিভিন্ন উপজেলায় কালবৈশাখী ঝড় হয়। ঝড়ে বিভিন্ন স্থানে বৈদ্যুতিক তার ক্ষতিগ্রস্ত হয়। সকালে ফুফাতো বোন সাহারার সঙ্গে বাড়ির পাশের পরিত্যক্ত একটি ভিটায় খেলতে যায় সানজিদা। ঝড়ে ছিঁড়ে যাওয়া বিদ্যুতের তারের ওপর পা দিলে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয় সানজিদা। এ সময় ফুফাতো বোন সাহারা চিৎকার করলে স্থানীয়রা এসে সানজিদাকে উদ্ধার করে গোসাইরহাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

আরও পড়ুনঃ   মান্দায় দোকানঘর ভা‌‌ঙচুরের অভিযোগ

নিহত সানজিদার চাচা মো. রাকিব ঢাকা পোস্টকে বলেন, বিদ্যুৎ অফিসের লোকজন যদি ছিঁড়ে যাওয়া তার ঠিক করে রাখত অথবা বিদ্যুৎ লাইন বন্ধ রাখত তাহলে আমার ভাতিজি বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হত না। আমার ফুটফুটে ভাতিজি শেষ হয়ে গেল।

আরও পড়ুনঃ   নগর আ.লীগের উদ্যোগে ঐতিহাসিক ৭ মার্চ দিবস পালন

গোসাইরহাট থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) পুষ্পেন দেবনাথ ঢাকা পোস্টকে বলেন, বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে এক শিশুর মৃত্যু সংবাদ পেয়েছি। এ ঘটনায় শিশুটির পরিবার অভিযোগ না করলে অপমৃত্যুর মামলা হবে।

শরীয়তপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির জেনারেল ম্যানেজার মো. আলতাপ হোসেন ঢাকা পোস্টকে বলেন, ছিঁড়ে যাওয়া তারে স্পৃষ্ট হয়ে এক শিশু মারা গেছে, এমন একটি সংবাদ আমি একটু আগেই জানতে পেরেছি। বিষয়টি খুবই দুঃখজনক। যদি বিদ্যুৎ অফিসের গাফিলতির কারণে এমন ঘটনা ঘটে থাকে তাহলে নিহতের পরিবারের আবেদনের ভিত্তিতে ক্ষতিপূরণ দেওয়া হবে।