চিকিৎসাসেবা বন্ধের হুঁশিয়ারি বেসরকারি চিকিৎসকদের

অনলাইন ডেস্ক : চট্টগ্রামে দুই চিকিৎসকের ওপর হামলায় জড়িতদের ২৪ ঘণ্টার মধ্যে গ্রেপ্তার করতে আল্টিমেটাম দিয়েছে বেসরকারি চিকিৎসা প্রতিষ্ঠান সমিতি। এর মধ্যে হামলাকারীদের গ্রেপ্তার করা না হলে সর্বাত্মক কর্মবিরতি পালনের ঘোষণা দিয়েছে সংগঠনটির নেতারা।
বুধবার (১৭ এপ্রিল) চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ আল্টিমেটাম দেওয়া হয়।

সংবাদ সম্মেলনে সংগঠনটির সভাপতি ডা. মোহাম্মদ শরীফ বলেন, পেশাগত দায়িত্ব পালনের ক্ষেত্রে নানাভাবে নির্যাতনের শিকার হচ্ছেন চিকিৎসকরা। একের পর এক চিকিৎসকের ওপর হামলার ঘটনা ঘটলেও উপযুক্ত বিচার না হওয়ার কারণে এসব হামলা বেড়েই চলছে। চিকিৎসকদের ওপর যে হামলাগুলো হচ্ছে, এর অন্যতম কারণ হলো বিচারহীনতার সংস্কৃতি। একটা ঘটনার যদি বিচার না হয়, অপরাধীরা যদি ছাড় পেয়ে যায়, তাহলে সন্ত্রাসীরা আরো দুঃসাহস দেখাবে। সার্বিকভাবে চিকিৎসকরা কর্মক্ষেত্রে খুবই অনিরাপদ। চিকিৎসকদের সুরক্ষায় শক্তিশালী একটা আইন হোক।

আরও পড়ুনঃ   অবৈধ ক্লিনিক-ডায়াগনস্টিকে অভিযান জোরদার হবে : স্বাস্থ্যমন্ত্রী

তিনি বলেন, আমার নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি। চিকিৎসকরা অনিরাপদ থাকলে চিকিৎসাসেবা ব্যাহত হবে। পটিয়ার ঘটনায় আসামিদের অবিলম্বে গ্রেপ্তারের দাবি জানাচ্ছি। একই সঙ্গে মেডিকেল সেন্টারে হামলাকারী আসামিদের জামিন বাতিল করতে হবে। আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে হামলাকারী দুর্বৃত্তদের গ্রেপ্তার করা না হলে সর্বাত্মক কর্মবিরতির মতো কঠোর পদক্ষেপ নিতে বাধ্য হবে চিকিৎসকরা।

আরও পড়ুনঃ   বই মেলায় ৬০ কোটি টাকার বই বিক্রি

প্রসঙ্গত, গত ১১ এপ্রিল রাতে পটিয়া জেনারেল হাসপাতালের জরুরি বিভাগে কর্তব্যরত চিকিৎসক রক্তিম দাশের (২৯) ওপর হামলা করে দুর্বৃত্তরা। রক্তিম দাশ চট্টগ্রাম মেডিকেলে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। এর দুদিন পর ১৪ এপ্রিল সকালে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল সেন্টার হাসপাতালে স্বজনদের হামলার শিকার হন ওই হাসপাতালের চিকিৎসক রিয়াজ উদ্দিন শিবলু। বর্তমানে তিনি চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।