মদ খাওয়ার ভিডিও ভাইরাল নিয়ে যা বললেন তনু

অনলাইন ডেস্ক : ময়মনসিংহের মুক্তাগাছা উপজেলা যুব মহিলা লীগের সভাপতি ইসরাত জাহান তনুকে ঘিরে নানা বিতর্ক সৃষ্টি হয়েছে। ছড়িয়ে পড়েছে তার বিভিন্ন আপত্তিকর ছবি ও ভিডিও। এ নিয়ে চলছে নানা আলোচনা-সমালোচনা। এর জেরেই শৃঙ্খলা পরিপন্থি কার্যক্রমে জড়িত থাকার অভিযোগে সম্প্রতি তাকে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

জানা গেছে, গত ১ এপ্রিল বাংলাদেশ যুব মহিলা লীগের দলীয় প্যাডে সংগঠন বিরোধী ও শৃঙ্খলা পরিপন্থি কার্যক্রমে জড়িত থাকার অভিযোগে ইসরাত জাহান তনুকে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে। পরবর্তীতে ৪ এপ্রিল মোহাম্মদ রাকিবুল হাসান নামে এক ব্যক্তির ফেসবুক আইডি থেকে তনুর মদপান ও ইয়াবা সেবনের স্থিরচিত্র ও অশ্লীল ভিডিও ফেসবুকে আপলোড করা হয়। পরে একে একে বিভিন্ন আইডি থেকে সামাজিক মাধ্যমে ছড়িয়ে দেয়া হয় সেই ছবি ও ভিডিও।

আরও পড়ুনঃ   মর্গে মায়ের মরদেহ, শিশুর পরিচয় খুঁজছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ

এ বিষয়ে যুব মহিলা লীগ নেত্রী তনু বলেন, ওই ভিডিওটি ইন্ডিয়ান-তামিল মদ খাওয়ার ভিডিও। সেখান থেকে একটা স্কীনশর্ট রাখা হয়। সেই স্কীনশর্টকে কেন্দ্র করে তারা মিথ্যা অপবাদ ছড়ায় যে, মুক্তগাছা যুব মহিলা লীগ নেত্রী মদ্যপান ও ইয়াবা সেবন করছে। কিছু ছবি ও ভিডিও ছড়িয়ে দেয়া হয়। যেগুলোর সঙ্গে আমার কোনো সম্পৃক্ততা নেই।

আরও পড়ুনঃ   ওয়ার্ড আ’লীগ নেতার মৃত্যুতে মিলাদ মাহফিল

তনু বলেন, এই ঘটনার সঙ্গে আমার দ্বিতীয় স্বামী জড়িত। দেনমোহর নিয়ে তার বিরুদ্ধে কোর্টে একটি মামলা চলমান। পুলিশ বলছে, আমরা একটি জিডি পেয়েছি। এ বিষয়ে তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।