ভূমিকম্পে থরথর করে কাঁপল জাতিসংঘ ভবন

অনলাইন ডেস্ক : যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্ক ও আশপাশের অঞ্চলে স্থানীয় সময় শুক্রবার (৫ এপ্রিল) সকালে আঘাত হেনেছে ৪ দশমিক ৮ মাত্রার একটি ভূমিকম্প। ওই সময় নিউইয়র্কের বিভিন্ন অঞ্চলে শক্তিশালী কম্পন অনুভূত হয়েছে। ভূমিকম্পের কম্পন কতটা জোরালো ছিল সেটি ধরা পড়েছে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের বৈঠকে থাকা একটি ক্যামেরায়।

ভিডিওটি মাইক্রো ব্লগিং সাইট এক্সে প্রকাশ করেছে জাতিসংঘ। এতে দেখা যাচ্ছে, ‘সেভ দ্য চিলড্রেন’-এর প্রেসিডেন্ট ও প্রধান নির্বাহী জান্তি সোয়েরিপ্তো কথা বলছেন। ওই সময় তিনি ফিলিস্তিনের গাজা উপত্যকা নিয়ে আলোচনা করছিলেন। তখন হঠাৎ করে জাতিসংঘের ভবনটি কেঁপে ওঠে।

যখন তিনি কথা বলা বন্ধ করে দেন তখন পাশ থেকে কেউ একজন মজার ছলে বলেন, “আপনি মাটি কাঁপাচ্ছেন।”

আরও পড়ুনঃ   মানবাধিকার লঙ্ঘনের অভিযোগে ইসরাইলি ইউনিটের ওপর নিষেধাজ্ঞার ইঙ্গিত যুক্তরাষ্ট্রের

শুক্রবার আঘাত হানা এই ভূমিকম্পটির উৎপত্তিস্থল ছিল পার্শ্ববর্তী নিউ জার্সি। তবে এ ভূমিকম্পে কেউ আহত বা নিহত হননি। এছাড়া কোনো অবকাঠামো ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার তথ্য জানা যায়নি।

এদিন সকালে নিউইয়র্ক সিটির অসংখ্য মানুষ কম্পন অনুভব করেন। ওই সময় অনেক বাড়ি ঘর কেঁপে ওঠে। পরবর্তীতে আনুষ্ঠানিকভাবে জানানো হয় এটি একটি ভূমিকম্প ছিল।

নিউইয়র্কের গভর্নর ক্যাথি হোচুল মাইক্রো ব্লগিং সাইটে ভূমিকম্পের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি এক্সে লিখেছেন, “পূর্ব ম্যানহাটনে ৪ দশমিক ৮ মাত্রার একটি ভূমিকম্প আঘাত হেনেছে এবং এটি পুরো নিউইয়র্কে অনুভূত হয়েছে। কোনো ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে কি না সেটি নিরূপণ করছে আমার দল। আমরা এ ব্যাপারে সাধারণ মানুষকে আরও অবহিত করব।”

আরও পড়ুনঃ   মধ্যপ্রাচ্যে ঈদ হতে পারে ১০ এপ্রিল

ভূমিকম্পের কারণে নিউইয়র্ক সিটি বিমানবন্দরের নামতে পারেনি বেশি কয়েকটি বিমান। ওই সময় সেগুলোকে ডাইভার্ট করা হয়।

যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় সুনামি সতর্কতা সংস্থা জানিয়েছে, ভূমিকম্পের কারণে সুনামির শঙ্কা নেই।

নিউইয়র্ক সিটি মেয়র এরিক অ্যাডামসের এক মুখপাত্র জানিয়েছেন, ভূমিকম্পে কোনো ধরনের ক্ষয়ক্ষতি হয়নি। তা সত্ত্বেও হাডসন নদীর নিচে অবস্থিত হল্যান্ড টানেলে গাড়ি চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। ভূমিকম্পে টানেলটিতে কোনো ধরনের ফাটল বা ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে কি না এখন সেটি নিরূপণ করা হচ্ছে।