গাজা উপত্যকায় বাফার জোন তৈরি করছে ইসরায়েল

অনলাইন ডেস্ক : ইসরায়েরেল প্রতিরক্ষা বাহিনী গাজা উপত্যকা সংলগ্ন সীমান্তে একটি নিরাপত্তা বাফার জোন তৈরি করছে। যা এই ছিটমহলের প্রায় ১৬ শতাংশ এলাকা অধিগ্রহণ করে তৈরি করা হতে পারে। হারেতজ পত্রিকায় পরিবেশিত খবরে এই কথা বলা হয়েছে। খবর তাস’র।

সংবাদপত্রের প্রতিবেদনে বলা হয়, স্যাটেলাইট থেকে প্রাপ্ত চিত্র অনুযায়ী জোনটি প্রায় ১ কিলোমিটার প্রশস্ত হবে এবং সেই এলাকার সমস্ত ভবন ভেঙ্গে ফেলা হবে।

আরও পড়ুনঃ   নেতানিয়াহুকে তলব ইসরায়েলি তদন্ত সংস্থার

ওই নিউজ আউটলেট পরিবেবেশিত খবরে আরো বলা হয়, ইসরায়েল ছিটমহলটিকে দ’ুটি অংশে বিভক্ত করার পরিকল্পনা করছে। এর একটি হবে উত্তর অংশ এবং অপরটি দক্ষিণ অংশ।

এই লক্ষ্যে ইসরায়েলিরা বেসামরিক ট্রাফিক নিয়ন্ত্রণের জন্য নেটজারিম করিডোর নামে পরিচিত আরেকটি বিশেষ বাফার জোন তৈরি করছে। ওই এলাকায় সীমান্ত বরাবর বাফার জোন তৈরি হলে গাজা উপত্যকার প্রস্থ হবে মাত্র ৫.৫ কিলোমিটার।
২০২৩ সালের ৭ অক্টোবর গাজার স্বাধীনতাকামী গ্রুপ হামাসের যোদ্ধারা ইসরায়েলি ভূখ-ে আকস্মিকভাবে হামলা চালালে মধ্যপ্রাচ্যে আবারো উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে।

আরও পড়ুনঃ   বাংলাদেশের উন্নতি দেখে এখন লজ্জিত হই : পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী

হামাস তাদের এমন হামলাকে জেরুজালেমের ওল্ড সিটির টেম্পল মাউন্টে আল-আকসা মসজিদের বিরুদ্ধে ইসরায়েলি কর্তৃপক্ষের আগ্রাসী কর্মকা-ের একটি বার্তা হিসেবে বর্ণনা করেছে।