হাসপাতালে ভর্তি জাকেরের সর্বশেষ অবস্থা জানাল চিকিৎসকরা

অনলাইন ডেস্ক : চট্টগ্রামে শেষ ওয়ানডেতে বদলি ক্রিকেটার হিসেবে মাঠে নেমেছিলেন জাকের আলি অনিক। আর মাঠে নেমেই যেন বিপদটা ডেকে আনলেন। বাংলাদেশ ইনিংসের শেষ ওভারে ফিল্ডিংয়ের সময় এনামুল হক বিজয়ের সঙ্গে ক্যাচ নিতে গিয়ে সংঘর্ষ বাঁধে তার।

পরে তাকে স্ট্রেচারে করে মাঠ থেকে উঠিয়ে নেওয়া হয়। এরপর নিতে হয় হাসপাতালেও। চট্টগ্রামের ইম্পেরিয়াল হাসপাতালের ডাক্তাররা জানালেন জাকেরের সর্বশেষ অবস্থা।

নিউরো সার্জন বিশেষজ্ঞ ডাক্তার মঈনউদ্দিন এম ইলিয়াস গণমাধ্যমকে বলেন, ‘আমরা ভিশনটা দেখেছি। ইমার্জেন্সি রেসপন্স দল দেখেছে। আমরা যেটা দেখতে পাচ্ছি এটা ঘাড়ের চোট। যে কন্ডিশন আছে রোগী স্থিতিশীল আছে এখন। আমরা উনাকে ২৪ থেকে ৪৮ ঘণ্টা পর্যবেক্ষণ রাখতে চাই যেহেতু প্রচুর ব্যথা আছে। এরপর ২৪ ঘণ্টা পর আপডেট জানাব। এখানেই ভর্তি রাখব।’

আরও পড়ুনঃ   ম্যাচের আগমুহূর্তে বদলে গেল রেফারি!

অর্থপেডিক সার্জন আবু মোহাম্মদ সায়েম বলেন, ‘উনার চোট মূলত ঘাড়ে। ব্রেনে কোনো চোট পাওয়া যায়নি। নেক মোবিলাইজ করে দিয়েছি। আশা করি ২৪-৪৮ ঘণ্টার মধ্যে ব্যথা কমে যাবে। ইতোমধ্যে ব্যথা কমেছে। উনি কথা বলেছেন, ঔষধও খেয়েছেন। ভয় করার কোনো কারণ নাই।’

জাকের আলি মাঠে এসেছিলেন সৌম্য সরকারের বদলি হিসেবে। ইনিংসের শেষ ওভারে তাসকিন আহমেদের করা শেষ ওভারে বড় শট খেলতে গিয়েছিলেন প্রমোদ মাদুশান। ক্যাচ উঠেছিল শর্ট বলে ক্যাচ তুলেছিলেন প্রমোদ। সেটি নেওয়ার পথে সংঘর্ষ হয় এনামুল ও বদলি ফিল্ডার জাকেরের। এনামুল অবশ্য ক্যাচ হাতছাড়া করেননি।

আরও পড়ুনঃ   ৬ বলে ৬ ছক্কায় ইতিহাসের পাতায় নেপালি ক্রিকেটার

জাকের ছাড়াও এদিন ইনজুরির কবলে পড়েছেন সৌম্য সরকার এবং মুস্তাফিজুর রহমানও। সৌম্য আঘাত পেয়েছেন ফিল্ডিং করতে গিয়ে। ঘাড়েও সমস্যা দেখা দেয় তার। পরে তার বদলি হিসেবে ব্যাটিং করেন তানজিদ তামিম। অন্যদিকে প্রচন্ড গরমের মাঝে মাংসপেশির ইনজুরিতে পড়েছেন মুস্তাফিজুর রহমান। তাকেও মাঠ ছাড়তে হয়েছে স্ট্রেচারে করে।